গুইমারাতে কৃষক-কৃষানীদের মাঝে পাওয়ারটিলা ও সেচ পাম্প বিতরণ

0
286


শাহ আলম রানা, গুইমারা(খাগড়াছড়ি)প্রতিনিধি ॥ বর্তমান সরকার ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে খাদ্যে স্বয়ং সর্ম্পূন্নতার জন্য উন্নত ও বিজ্ঞান সম্মত চাষাবাদের বিকল্প নেই মন্তব্য করে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী বলেছেন, আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতি ছাড়া বিজ্ঞানসম্মত চাষাবাদ কখনো কল্পনা করা যায় না। সকালে খাগড়াছড়ি’র গুইমারা উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয় ও স্ট্রেনদেনিং ইনক্লুসিভ ডেভেলপমেন্ট ইন চিটাগাং হিল ট্র্যাক্টস (এসআইডি-সিএইচটি) ইউএনডিপির সহযোগীতা শীর্ষক প্রকল্পের অধীনে “কৃষক মাঠ স্কুলের সদস্য” কৃষক-কৃষানীদের মাঝে পাওয়ার টিলার ও সেচ পাম্প বিতরণ কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু’র কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যন্ত জনপদে প্রান্তিক কৃষকদের এগিয়ে নিতে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাই প্রান্তিক কৃষকদের সুবিধার্থে এসআইডি-সিএইচটি প্রকল্পের আওতায় “পাওয়ার টিলার ও সেচ পাম্প” বিতরণ করা যন্ত্রগুলো সঠিকভাবে পরিচালনা করে কৃষকদের জীবন যাত্রার মান আরো উন্নত হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
গুইমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাসে’র সভাপতিত্বে বিতরণী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের উপধ্যে উপস্থিত ছিলেন, গুইমারা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান উশ্যেপ্রু মারমা, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান মেমং মারমা, উপজেলা মৎস কর্মকর্তা সুদৃষ্টি চাকমা, এসআইডি-সিএইচটি, ইউএনডিপি’র জেলা ব্যবস্থাপক প্রিয়তর চাকমা, গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ বিদ্যুৎ কুমার বড়–য়া প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের উপজেলার ৩টি ইউনিয়নের ইউএনডিপি পরিচালিত “কৃষক মাঠ স্কুলের” ২৬জন কৃষক-কৃষানীর মাঝে ১৩টি পাওয়ার টিলার ও ১৩টি সেচ পাম্প বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও জেলার প্রতিটি উপজেলায় একই ভাবে ১১৩টি পাওয়ার টিলার ও ১১৩টি সেচ পাম্প বিতরণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here