নান্দাইলে দোকান ভাঙচুরের ঘটনায় তিনজন আহত

0
542

নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় দোকান ঘর ভাংচুরের ঘটনায় প্রতিপক্ষের লোকজনকে লোহার রড ও দেশিয় অন্ত্র দিয়ে গুরুত্বর আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাতে রাজগাতী ইউনিয়নের কালিগঞ্জ বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এতে ৩জন গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত লিটনের নিকট থেকে হামলা কারীরা ২লাখ ৬৫হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। আহতদের প্রথমে নান্দাইল হাসপাতালে ও পরে কিশোরগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নান্দাইল থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, কাশিনগর গ্রামের তাহের উদ্দিন ভূইয়ার কালিগঞ্জ বাজারে একটি দোকান ঘর রয়েছে। তাঁর দোকানের সাথে ওই গ্রামের দস্তর আলীর আরেকটি দোকান রয়েছে। মঙ্গলবার দস্তর আলী তার পুত্র আলমগীর, জাহাঙ্গির, নাদিম, ভাই লিটন মিয়া, রতন মিয়া ও প্রতিবেশি হেলাল মিয়াকে নিয়ে তাহের উদ্দিনের দোকান ঘরের একটি অংশ ভেঙ্গে ফেলে। পরে রাতে ঘর ভাঙ্গার বিষয়ে জানতে চাইলে দস্তর আলী তার তিন পুত্র সহ ৮/১০ জন নিয়ে তাহের উদ্দিনের উপর হামলা চালায়। এতে বাধা দিতে গিয়ে তাহের উদ্দিন সহ তার দুই পুত্র লিটন ভূইয়া ও সুমন ভূইয়াকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। আহত অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাদেরকে প্রথমে নান্দাইল ও পরে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। হামলার বিষয়ে বুধবার নান্দাইল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অনুসন্ধানে জানা গেছে, দস্তর আলী কাশিনগর গ্রামের চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী। সে তার পুত্রদের নিয়ে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। স্থানীয়রা জানায়, দস্তর আলীর পুত্রদের অত্যাচারে কালিগঞ্জ বাজারের অনেক ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে আসছে। নাম প্রকাশে অনিশ্চুক কয়েকজন জানিয়েছে, দস্তর আলীর তিন ছেলে এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী ও সেবী। নান্দাইল থানার ওসি মনসুর আহম্মদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, রড দিয়ে পিটানোর বিষয়ে থানায় অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে দস্তর আলীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here