টেকনাফ সৈকতে ঝাউবন নিধনের কারণে হস্তক্ষেপ কামনা

0
188

হাবিবুল ইসলাম হাবিব,টেকনাফ:: পৃথিবীর দীর্ঘতম কক্সবাজার থেকে টেকনাফ ৮০ কিলোমিটারের এই সড়কটি কক্সবাজারের কলাতলী থেকে শুরু হয়ে টেকনাফ পর্যন্ত বিস্তৃত। মেরিন ড্রাইভ সড়কের একদিকে রয়েছে উত্তাল সমুদ্র সৈকত। অন্য দিকে রয়েছে সবুজে ঢাকা ছোট বড় পাহাড়। আবার কোথাও রয়েছে দৃষ্টি নন্দন সারি সারি ঝাউবন। তবে মেরিন ড্রাইভের এই সৌন্দর্য গুলো কিছু কিছু পয়েন্টে বিলীন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই বিষয়ে ভাঙ্গন কৃত এলাকায় কথা বলে জানা যায় , কিছু কিছু অসাধু গাছ খেকোরা রাতের আঁধারে ঝাউগাছ কেটে নিয়ে যায়। যার প্রভাব পড়ে মেরিন ড্রাইভ সড়কে। বর্ষার সময় অবিরাম প্রচুর বৃষ্টিপাত একই সাথে সমুদ্র থেকে উত্থিত দেওয়াল সদৃশ্য জলোচ্ছ্বাস। সেই সাথে সাগরের উত্তাল ঢেউ এবং জোয়ারের পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে ঝাউবন, সাথে ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে স্বপ্নের মেরিন ড্রাইভের ও। এলাকাবাসীর সুত্রে জানা যায়, যদি ঝাউগাছ নিধন বন্ধ করা না যায়,ভবিষ্যতে এই ক্ষতি আরো দিগুন বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মেরিন ড্রাইভ ও উপকূলীয় এলাকায় বসবাসকারী মানুষদের। এবং রাজার ছড়া বিট অফিসার আইয়ুব আলী জানান, নোয়াখালী উপকূলীয় এলাকার ঝাউবন আমাদের এরিয়ার বাহিরে । তার পরেও ঝাউবন রক্ষায় আমরা সদা তৎপর রয়েছি। এই বিষয়ে এলাকাবাসী ঝাউবন ও মেরিন ড্রাইভ রক্ষায় সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here