টেকনাফে মারোতের প্রচেষ্টায় ১০ বছর পর জাফর ফিরে গেল নিজ পরিবারে

0
174

হাবিবুল ইসলাম হাবিব:: মানসিক রোগীদের তহবিল (মারোত) একটি সেচ্ছাসেবী সংঘটন টেকনাফ উপজেলা সহ সারা দেশের মানসিক রোগীদের নিয়ে কাজ করে। নিজেদের সক্রিয় ভূমিকা এবং আর্থিক সহযোগিতা র মধ্যে খাবার বিতরণ, চিকিৎসা এবং অসহায় মানসিক ভারসাম্য হীন রোগী র নিজ পরিবারের নিকট হস্তান্তর প্রচেষ্টা চালানো হয়। এর প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে মারোত কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি বাবু ঝুন্টু বড়ুয়া র দৃষ্টিতে পড়ে অসহায় মানসিক ভারসাম্য হীন পাগল জাফর আলমের দিকে। ইতিমধ্যে জাফর আলম সহ আরো কয়েক জন বর্তমানে নয়াপাড়ায় ঝুন্টু বড়ুয়া র তত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছে। জাফর আলম তার বাড়ি নোয়াখালী র চাটখিল বলে জানায়, এর মধ্যে ঝুন্টু বড়ুয়া র নিজস্ব ফেইসবুক আইডি এবং মারোত এর পেইজ এ ঝুন্টু বড়ুয়া র সাক্ষাৎকার ভিডিও প্রচার করা হয় সাথে সাথে ঐ এলাকায় চেয়ারম্যান বাকী বিল্লাহ র সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে পরিচয় নিশ্চিত হন। এর মাঝে জাফর আলম আবার হারিয়ে গেলে এমাদুল করিম রনি, উপদেষ্টা সাইফুল, জয়েন্ট সেক্রেটারি মোবারক এর অক্লান্ত পরিশ্রমে খুঁজে বের করা হয়। পরে ভিডিও কলের মাধ্যমে জাফর আলম এর পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলে পরস্পরের পরিচয় নিশ্চিত হলে বড় ভাই সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহাজাহান, মেয়ের জামাই মোহাম্মদ জামাল হোসাইন, চাচাতো ভাই মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান প্রাইভেট গাড়ি নিয়ে টেকনাফ মারোতের অস্থায়ী কার্যালয় হাকিম আলী মার্কেটে যোগাযোগ করলে এক অনারম্বর অনুষ্ঠান র মাধ্যমে হস্তান্তর করা হয়। উক্ত হস্তান্তর অনুষ্ঠান র সভাপতি ত্ব করেন মারোত কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আবু সুফিয়ান, প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন মারোত কেন্দ্রীয় কমিটির প্রধান উপদেষ্টা অধ্যাপক সন্তোষ কুমার শীল। জয়েন্ট সেক্রেটারি মোবারক হোসাইন ভুইয়া র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠন এর উপদেষ্টা সাইফুল ইসলাম, সহ-সভাপতি বাবু ঝুন্টু বড়ুয়া, আইটি সম্পাদক মোহাম্মদ হোসাইন আমিরী, এমাদুল করিম রনি, আবদুল মাজেদ, আরিফুল হক রোহান ও জাহিদ হোসেন প্রমুখ। প্রধান অতিথি অধ্যাপক সন্তোষ কুমার শীল এর প্রানবন্ত বক্তৃতা য় বলেন মারোত প্রতিষ্ঠা র পর থেকে প্রায় দুই বছর যাবৎ সাধারণ সদস্যদের চাদার নিজস্ব তহবিলের মাধ্যমে মানসিক রোগীদের সেবা দিয়ে আসছে, খাবার বিতরণ করা, চিকিৎসা সেবা থেকে শুরু করে ইতিপূর্বে ১৭ জন মানসিক রোগীর নিজ নিজ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here