লুঙ্গিতে হাওয়া ভরে তিনদিন সমুদ্রে

0
139

তিনদিন সমুদ্রে ভেসে থাকার পর বাংলাদেশি ছেলে ইমরান খানকে উদ্ধার করে ভারতের জেলেরা। উদ্ধার হওয়ার পর কিশোর ইমরান খান জানায়, লুঙ্গির জন্যই এই যাত্রায় বেঁচে গেছে সে। এর আগে কাকদ্বীপের জেলে রবীন্দ্রনাথ দাস পাঁচদিন সমুদ্রে ভেসে থেকেও প্রাণে বেঁচেছিলেন। বাংলাদেশির জেলেরা তাকে উদ্ধার করেছিলেন।

গতকাল শনিবার সকালে উদ্ধারকারী ভারতীয় ট্রলার ইমরানকে রায়দিঘি থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়। এর পর চিকিৎসার জন্য ইমরানকে রায়দিঘি গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

সপ্তাহখানেক আগে ১২ জন জেলের সঙ্গে ট্রলারে চেপে সমুদ্রে মাছ ধরতে বেরিয়েছিল ইমরান। সমুদ্র থেকে পানি তোলার সময় শরীরের ভারসাম্য হারিয়ে সে পড়ে যায়। এর পর পানির তোড়ে ভেসে যেতে থাকে। সঙ্গে লাইফ জ্যাকেটও ছিল না। এমন অবস্থায় উত্তাল সমুদ্রে ভেসে থাকা প্রায় অসম্ভব। ইমরান পরনের লুঙ্গি খুলে তাতে কায়দা করে হাওয়া ভরে ফুলিয়ে সমুদ্রে ভেসেছিল বলে জানা গেছে।

ইমরানকে উদ্ধারকারী ট্রলারের মাঝি মনোরঞ্জন দাস বলেন, রায়দিঘি থেকে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে তারা একজন মানুষকে সমুদ্রে ভাসতে দেখেন। এর পর কাছে যেতেই ইমরানকে দেখতে পান তারা। তড়িঘড়ি তাকে উদ্ধার করা হয়।

মনোরঞ্জন দাস বলেন, আমরা দেখলাম ও লুঙ্গি ফুলিয়ে সেটা আঁকড়ে ধরে ভাসছিল। এর পরই তাকে ট্রলারে তুলে নিই আমরা। বাংলাদেশের পাথরঘাটা থানা এলাকার বরগুনার চরের ঘোরানি গ্রামের বাসিন্দা ইমরান। আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ইমরানকে দেশে ফেরানো হবে বলে জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here