ফেনী সদর ও পৌর আ’লীগের নেতৃত্ব দিবেন শুসেন ও স্বপন মিয়াজী

0
140

ফারুক আহমদ শামীম, ফেনী জেলাঃ
ফেনী জেলার সদর উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামীলীগের বহুল প্রতিক্ষিত সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। 
বৃহস্পতিবার (১২সেপ্টেম্বর) বিকালে শহরের মিজান ময়দানে অনুষ্ঠিত হয় আওয়ামিলীগের বহুল প্রতিক্ষিত ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনটি।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,  দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি, প্রধান আকর্ষণ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী।
সম্মেলনের উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বি.কম।
বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামীলীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য আজিজ আহম্মদ চৌধুরী, ফেনী জেলার সিনিয়র সহ-সভাপতি এডভোকেট আক্রামুজ্জামান, মাষ্টার আলী হায়দার।
এছাড়া বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সাইফুদ্দিন নাসির, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি আয়নুল কবির শামীম। সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুর হোসেন।

এই সময় নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দের নাম ঘোষণা করেন মাহবুবুল আলম হানিফ।

সদর উপজেলা ও পৌর শাখায় সভাপতি পদে গত দুইবারের সভাপতি যথাক্রমে করিম উল্যাহ বি.কম ও আয়নুল কবির শামীম নির্বাচিত হন।
গত ক’দিন ধরে সব আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু ছিল সাধারণ সম্পাদক পদ ঘিরে।
জেলা সদরের গুরুত্বপূর্ণ দুটি ইউনিটের শীর্ষ এ পদে যুবলীগের নেতৃত্বে থাকা দুই তরুণ মুখ শুসেন চন্দ্র শীল সদর উপজেলায় ও নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী পৌরসভায় নির্বাচিত হন।
শুসেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্বপন সিনিয়র সহ-সভাপতি রয়েছেন।
২০১২ সালের শেষ দিকে সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে সদর উপজেলায় করিম উল্লাহ বি.কমকে সভাপতি ও এড. নুর হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক, পৌরসভায় আইনুল কবির শামীমকে সভাপতি ও আবদুল করিমকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর আগে ২০০৪ সালে করিম উল্লাহ বি.কম সদর উপজেলা সভাপতি ও এড. নুর হোসেন সাধারণ সম্পাদক, পৌরসভায় আয়নুল কবির শামীম সভাপতি ও আবদুল করিম সাধারণ সম্পাদক হয়ে জুটি গড়েন।

২০১২ সালের সম্মেলনে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের রাজনীতিতে ছন্দপতন হলেও এ দুটি জুটি থাকে অক্ষত।
সদর উপজেলা সভাপতি করিম উল্যাহ বি.কমের সভাপতিত্বে ও পৌর সাধারণ সম্পাদক আবদুল করিমের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম।
সম্মেলনে সদর উপজেলা শাখায় ৪শ ৩৯ ও পৌর শাখায় ৪শ ১৩ জন কাউন্সিলর ছাড়াও আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে সম্মেলনস্থল মিজান ময়দান কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়।
গত জুলাই মাসে সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ও ১০৮টি ওয়ার্ড এবং পৌরসভার ১৮টি ওয়ার্ডে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here