ক্রিকেটার হওয়ার সপ্ন দেখছেন এক দল তরুন

0
239

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি. ছবি আ

কথায় আছে পরিশ্রম সাফল্যের চাবিকাঠি। পড়াশোনার পাশাপাশি যে টুকু সময় পায় সেটা খেলাধুলার মাঝে ব্যায় করছেন এক দল তরুন। কেননা তাদের সপ্ন একদিন তারা ভাল ক্রিকেটার হবে। আর সেই সপ্ন দেখাচ্ছেন নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার পৌর সদরে অবস্থিত ফ্রিডম ফাইটার ক্রিকেট একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সোহানুর রহমান সজিব। মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদসহ সকল অপরাধ কার্যক্রমে তরুনরা যেন জড়িয়ে না পড়ে এবং পৌর সদর থেকে যদি একজন খেলোয়ারও জাতীয় দলে খেলতে পারে সেই লক্ষে তরুনদের প্রশিক্ষন দিচ্ছেন তিনি।

ফ্রিডম ফাইটার ক্রিকেট একাডেমি সূত্রে জানাযায়, ২০১৪ সালের জুন মাসে ৫জন কিশোরকে নিয়ে যাত্রা শুরু করে এই একাডেমি। বর্তমানে এই একাডেমিতে প্রশিক্ষন নিচ্ছেন ৩২ জন তরুন কিশোর। ক্রিকেটার হওয়ার সপ্ন নিয়েই পড়াশোনার পাশাপাশি সকালে ও বিকেলে সময় দেন তরুন কিশোররা। তাদের সপ্ন একদিন তারা জাতীয় দলে খেলবে। সেই লক্ষেই সপ্তাহের ৬দিন সকাল ৬টা থেকে ৮টা পর্যন্ত ও বিকেল ৪টা থেকে সন্ধা ৬টা পর্যন্ত তারা প্রশিক্ষন করেন। প্রশিক্ষনের জন্য একাডেমির পক্ষ থেকে রাখা হয়েছে একজন দক্ষ প্রশিক্ষক (হেড কোস) মোঃ সাব্বির আহম্মেদ। এই প্রশিক্ষক ঢাকা সেকেন্ড ডিভিশন লিগ মিরপুর বয়েজ এর একজন খেলোয়ার।

ক্রিকেট একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সোহানুর রহমান সজিব বলেন, আমি নিজেই ক্রিকেটকে পছন্দ করি এবং প্রতিনিয়ত ক্রিকেট প্র্যাকটিস করি। আমি বিলচলন শহীদ সামসুজ্জোহা সরকারী অনার্স কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার একজ ক্ষুদ্র কর্মী। আমার সপ্ন আমার এই ফ্রিডম ফাইটার ক্রিকেট একাডেমির খেলোয়াররা একদিন জাতীয় দলে খেলবে। তাছাড়াও বর্তমান বিশ্বে ক্রিকেট একটি আলোচিত বিষয় তাই মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে শিক্ষার পাশাপাশি খেলাধোলার মাঝে তরুন কিশোরদের রাখতেই আমার এই বিশেষ উদ্যোগ। আমাদের এই ক্রিকেট একাডেমিতে ৩২ জন প্রশিক্ষনার্থী আছে। এই ক্রিকেট একাডেমিতে তরুন ক্রিকেটারদের প্রশিক্ষন দেওয়ার জন্য রয়েছে একজন তরুন প্রশিক্ষক। তাছাড়াও নিজেদের অর্থায়নে উন্নতমানের ক্রিকেট সামগ্রী দিয়ে তাদের প্রশিক্ষণ করানো হয়। আমাদের এই একাডেমি থেকে জাতীয় পর্যায়ে অনুর্ধ্ব (১৬) তে প্রাথমিক পর্যায়ে আল-আমিন ও নাস্তাইন এবং শুভ অনুর্ধ্ব(১৪) তে প্রাথমিক পর্যায়ে সুযোগ পেয়েছে। এমন ভাবেই একদিন আমার এই একাডেমির খেলোয়াররা জাতীয় দলে খেলবে এটাই আমার প্রত্যাশা। তাই সবাইকে বলি আসুন মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে শিক্ষার পাশাপাশি আপনার সন্তানকে খেলাধুলায় মনোযোগ বাড়িয়ে দিন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তমাল হোসেন বলেন, ফ্রিডম ফাইটার ক্রিকেট একাডেমির বিষয়ে আমি শুনেছি। তবে তাদের কার্যক্রম সরেজমীনে গিয়ে আমি দেখে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here