পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আটপাড়ায় নির্বাচনী হাল চিত্র

0
531


মো: বাবুল (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি :
নেত্রকোনার আটপাড়ায় আগামী ১৪ অক্টোবর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গত ২৩ সেপ্টেম্বর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রতীক বরাদ্দের পর থেকেই উপজেলার সর্বত্রই প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। প্রার্থীদের প্রচারণায় ভোটারদের মাঝেও উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। উপজেলার মোট ৭টি ইউনিয়নে ১০৮৭৯৯ ভোটারের মধ্যে পুরষ ৫৪৫০৬ ও মহিলা ৫৪৪৭১ জন।
এবার প্রতীকের চেয়ে ব্যক্তি ইমেজ ও আঞ্চলিকতার ভিত্তিতে প্রার্থীরা নির্বাচিত হবেন। ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে স্বরমুশিয়া, শুনই, তেলিগাতী ও সুখারীতে চেয়ারম্যান পদে কোন প্রার্থী নেই।
দুওজ ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ মনোনীত হাজী মো: খায়রুল ইসলাম নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান মো: মোকাম্মেল হোসেন বাবু আনারস প্রতীক নিয়ে একই কেন্দ্র থেকে এবং বানিয়াজান ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মহিবুজ্জামান লিটন মটর সাইকেল, মো: হুমায়ুন কবীর লিটন ঘোড়া ও আলহাজ্ব মো: নজরুল ইসলাম দোয়াত কলম এবং লুনেশ্বর বিএনপি’র মনোনীত একক প্রার্থী তৌছিফুল ইসলাম ধানের শীষ নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। তবে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হাজী মো: খায়রুল ইসলাম নৌকার প্রতীক পাওয়ায় দলীয় নেতা-কর্মীসহ ভোটারদের মাঝে শক্ত অবস্থানে রয়েছেন।
সরেজমিনে ভোটারদের সঙ্গে কথা বললে জানা যায়, বানিয়াজান ইউনিয়নের স্বতন্ত্রী প্রার্থী মো: হুমায়ুন কবীর লিটন স্বরমুশিয়া ও শুনই ইউনিয়নের সংলগ্ন গ্রামের প্রার্থী হওয়ায় ভোটারদের মধ্যে আঞ্চলিকতার টান কাজ করছে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী মহিবুজ্জামান খান লিটন উপজেলা সদরের বাসিন্দা হওয়ায় সর্বত্রই তার প্রভাব রয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ্ব মো: নজরুল ইসলামের তেমন কোন সারা পাওয়া যাচ্ছে না। অপর দিকে বিএনপি’র মনোনীত প্রার্থী তৌছিফুল ইসলাম ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন এবং প্রার্থীর দলীয় কোন পদ পদবী না থাকায় ও এলাকায় অপরিচিত হওয়ায় সুবিধাজনক অবস্থার সৃষ্টি করতে পারছেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here