শিক্ষক সংকট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্যা সমাধানের প্রক্রিয়া চলছে : সিলেটে শিক্ষামন্ত্রী

0
75


সিলেট প্রতিনিধি
দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান সমস্যা সমাধানে সরকার চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সিলেটে শিক্ষক সংকটের বিষয়টি সমাধানের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন শিক্ষামন্ত্রী। রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিল কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে তিনি এ কথা বলেন।
সিলেট বিভাগের চার জেলার নতুন ১৪টি বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিল কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এরপর শিক্ষার্থীদের সাথে মিড-ডে মিলের খাবার খান তিনি।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষার মানোন্নয়নে স্কুল ফিডিং নীতিমালার আওতায় সরকারের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পর মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর মিড-ডে মিল চালু করেছে। শিশুদের স্কুলমুখী করতে প্রতি মিলের জন্য আগ্রহী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অনূর্ধ্ব ২০ টাকা গ্রহণ করা যাবে। প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যসম্মত রান্নার জায়গা এবং রান্না পরিবেশন করার জনবলের ব্যবস্থা করা হবে। এ সময় শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান নওফেল উপস্থিত ছিলেন।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এখন কোনো সেশন জট নেই। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এখন সঠিকভাবে চলছে। কোথাও কোথাও কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা ইস্যুতে ছোটখাটো আন্দোলন আছে, কিছু দাবিদাওয়া আছে। যখনই যেখানে যে সমস্যা আছে, আমরা তখনই দ্রুততার সঙ্গে সেগুলো মোকাবেলা করছি, আলাপ আলোচনা করছি, সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করছি। এখন যেখানে যেখানে যে সমস্যাগুলো আছে, সেই সমস্যাগুলোও খুব শিগগিরই আমরা নিরসন করতে পারবো।
এছাড়া শিক্ষায় কোচিং বাণিজ্য নিয়েও কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, কোচিং বাণিজ্য এমন একটি বিষয়, এটি সুইচ টিপে চালু আর সুইচ টিপে বন্ধ করা যায় না। এটি বন্ধের ক্ষেত্রে সরকারের যেমন সদিচ্ছা আছে, তেমনি আমাদের সকলের সদিচ্ছা থাকতে হবে। শিক্ষকদের, অভিভাবকদের সদিচ্ছা থাকতে হবে, প্রশাসনের সদিচ্ছা থাকতে হবে।
মন্ত্রী বলেন, কোচিং পুরোটি বন্ধ করে দেওয়ার বিষয় নয়। অনেক শিক্ষার্থী আছে যাদের দুর্বলতা আছে কোথাও, তাদের কোচিং প্রয়োজন আছে। সারাবিশ্বেই কোচিং হয়। কিন্তু যেখানে কোনো শিক্ষক নিজ শিক্ষালয়ে শিক্ষাদান না করে তার নিজের স্কুলের শিক্ষার্থীদেরকে বাধ্য করেন তার কাছে অর্থের বিনিময়ে পড়তে, সেই বাণিজ্য অংশটুকু, অন্যায়ভাবে চাপিয়ে দেওয়ার অংশটুকু বন্ধ করতে হলে সবার অংশগ্রহণ প্রয়োজন। এ নিয়ে আদালতে একটি মামলা ছিল, সেটির রায়ও আমরা পেয়েছি।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।
এরআগে বেলা ১২ টার দিকে বিমানযোগে সিলেটে এসে হযরত শাহজালাল ও শাহপরান (রহ.) এর মাজার জিয়ারত করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ও উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here