নোবিপ্রবিতে ছাত্রলীগ এর সংঘর্ষ, ৩৭ জন কে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা

0
30


নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের সময় ছাত্রাবাসে ভাঙচুর ও শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনায় ৩৭ জনকে বিভিন্ন ধরনের সাজা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে ১৬ ছাত্রকে ছয় মাসের জন্য বহিষ্কার, সাতজনকে ২০ হাজার টাকা করে, ১২ জনকে পাঁচ হাজার টাকা করে এবং জরিমানা দুইজনকে সতর্ক করা হয় বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার প্রফেসর মোমিনুল হক স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীরা হলো- রবিউল হক চৌধুরী (কৃষি), মো. জহিরুল ইসলাম(ব্যবসায় প্রশাসন) , মো. আবদুর রহিম সিয়াম(কৃষি), জাহিদ হাসান শুভ(ইএসডিএম),কাজী আশরাফুল হক লিসান(ইএসডিএম),ইয়াসিন আরাফাত তারেক(ইএসডিএম),মো. শফিউর রহমান অন্তর(বিজিই),মো. সাইফুল্লাহ সনি(সিএসটিই),অর্নব সরকার(সমাজ কর্ম), মো. তৌহিদুল ইসলাম(কৃষি), মো. আল ইমরান(আইসিই),আবদুল্লাহ আল মাসুদ(ফলিত গণিত), ওমর ফারুক(কৃষি), মো. মিরাজ মাহতাব(ইংরেজি) ,আবদুল্লাহ আল নোমান(অর্থনীতি),কে এস এম সায়েম(মাইক্রোবায়োলজী) 
জানা যায়, গত ৩১ আগস্ট রাত ৯টার দিকে হলের সামনে প্রকাশ্যে ধূমপান করাকে কেন্দ্র করে সিনিয়র-জুনিয়রদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে পরিস্থিতি বড় আকার ধারণ করে। এতে হলের সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে এ নিয়ে রাত ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষাশহীদ আব্দুস সালাম হলে উভয় গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। গভীর রাত পর্যন্ত উভয় গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া হয়। উভয় পক্ষ একে অপরকে ইটপাটকেল ছোড়ে। এতে অন্তত পাঁচজন আহত হন।পরের দিন ১ সেপ্টেম্বর আবারো সংঘর্ষ বাঁধে।এ দফায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মালেক উকিল হলের প্রভোস্ট ড.ফিরোজ স্যার মারাত্মক ভাবে আহত হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভাষা শহীদ আব্দুস সালাম হল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে। 
ফারহানা সুপ্তিনোবিপ্রবি প্রতিনিধি 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here