পেঁয়াজ, লবণ, চাল নিয়ে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টিকারী কারও রেহাই নেই, বললেন কাদের

0
47

পেঁয়াজ, লবণ, চাল নিয়ে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টিকারী কারও রেহাই নেই, সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে বন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার রাতে ধানমন্ডি আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, লবণ-চাল নিয়ে আজ গুজব সৃষ্টি করা হচ্ছে। আমরা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আহ্বান জানাবো এসব গুজবে বিভ্রান্ত হবেন না। আমরা এখান থেকে পরিস্কারভাবে বলে দিতে চাই, যারাই এ ষড়যন্ত্র করছে, তাদের কারও রেহাই নেই। তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি আরো বলেন, পেঁয়াজ এরপর লবণ নিয়ে দেশে পরিকল্পিতভাবে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। গুজব সৃষ্টি করে লবণের দাম বৃদ্ধির ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। বাজারে অরাজকতা অস্থিরতা সৃষ্টির অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। এখান থেকে কেউ কেউ রাজনৈতিক ফায়দা তোলার অপচেষ্টায় লিপ্ত।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারা এর মধ্যে আওয়াজ তুলেছে, আগাম নির্বাচন চায়। আগাম নির্বাচন চাওয়ার অর্থ হচ্ছে এটি তাদের মামা বাড়ির আবদার করার মতোই বক্তব্য। একটি বিরোধী দল এসব গুজব সৃষ্টি করছে, গুজবে উসকানি দিচ্ছে এটি আজ পরিষ্কার। এ মহলটি দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায়।

দেশে পর্যাপ্ত চালের মজুদ রয়েছে জানিয়ে এসময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জানান, দেশে পর্যাপ্ত চালের মজুদ রয়েছে। এরমধ্যে আগামীকাল থেকে সারাদেশে সরকারিভাবে নতুন ধান ক্রয়ের কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। কোথাও কোন সংকট নেই। এসময় মিডিয়াসহ সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান কাদের।

নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের প্রতিবাদে ট্রাক কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির কর্মবিরতি প্রসঙ্গে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, তারা আর কিছুক্ষণের মধ্যে আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসবেন। আমি আশা করবো, তাদের সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

এসময় তিনি পুলিশ সদস্যেদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, শাস্তি দেয়ার ক্ষেত্র আপনারা সহনশীল হবেন। আমরা কাউকে শাস্তি দিতে চাই না। আইনের আওতায় আনতে চাই; এটা সবার জন্য জরুরি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু, তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক, আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here