৯৯৯নম্বরে ফোন: কাঁচা-পাকা আমন ধান রক্ষা

0
122


নীলফামারী প্রতিনিধিঃ নীলফামারী সদর উপজেলার পশ্চিম কুচিয়া মোড় গ্রামে দেশীয় অস্ত্র লাঠি, কাস্তে, দা, ছুড়ি নিয়ে রিনা বেগমের জেিত রোপিত আধা-পাকা আমন ধান কাটতে গেলে রিনা বেগম বাধা প্রদান করে এক পর্যায়ে সংঘর্স বাধে মোঃ আব্দুল আজিজ (২৬) হাবিবুর রহমান (২৩) উভয়ের পিতাঃ মোঃ আবু বক্কর, ৩। মোঃ আবু বক্কর (৫৫), পিতা- মৃত কফদ্দি প্রমানিক ৪। মোঃ জাহিনুর রহমান (৪৫) পিতা- ইসমাইল হোসেন, সাং- নতিব চাপড়া, ৫। মোঃ আব্দুল কাদের (৬০) পিতা- ইসমাইল হোসেন, গং- অকথ্য ভাষায় গালিগালজ করিয়া আধা-পাকা ধান গাছ কাটতে থাকে ও রিনা বেগমকে মার-ডাং ও ধাক্কা ধাক্কি করে এ সময় অবস্থা সামলাতে না পেরে রিনা বেগমের স্বামী মোঃ আব্দুর রশিদ ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সাহায্য চাইলে মুহুর্তেও মধ্যে নীলফামারী সদর থানা পুলিশ আসলে রিনা বেগমের জেিত কাচা-পাকা ধান কাটতে থাকা সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে গতকাল, ২৩ নভেম্বর শনিবার থানায় মামলা দায়ের করেছে রিনা বেগম। মামলার বিবরণ ও সরেজমিনে জানা গেছে দলিল নং ৪৪৫/১৯ ও ১৬৫/১৬৬/১৩৬ দাগে ১০ শতক একক দাগে জমি ক্রয় করেন রিনা বেগম। ঐ ক্রয়ৃকত জমিতে রোপন করা আধা-পাকা ধান কেটে নেবার হুকুম দেন জাহিনুর রহমান ও আব্দুল কাদের। এ সময় দেশীয় অস্ত্রের ভয় ও অশ্লীল ভাষা উচ্চারন করে ধান কাঠতে লাগলে রিনা বেগমের স্বামী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সাহায্য চাইলে তৎক্ষনাত পুলিশ এসে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। আব্দুর রশিদ বলেন, তারা বার বার আমার জমির ধান কেটে নিয়েছে, এদের বিরুদ্ধে এর আগেও ধান কাটার একটা মামলা আছে, মামলা নং- ২৩৩/১৯(নীল) ধারা ১৪৪/১৪৫ কার্যবিধি ৯/৭/১৯ , জমির মালিক রিনা বেগম বলেন, আমি অসহায় মহিলা আমার কোন পুত্র সন্তান না থাকায় তারা আমাকে গালিগালাজ, ধাক্কা-ধাক্কি করে সব সময়। আমি আইনি সহায়তা চাই, এই জমি আবাদ করে সংসার চালাই। নীলফামারী থানার তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, রিনা বেগমের বিষয়টি অবগত আছি, দ্রুত মামলা দায়ের হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here